ঢাকাসোমবার , ২০ ডিসেম্বর ২০২১
  1. গল্প
  2. চারপাঁশে
  3. ভালবাসার খুনসুটি
  4. ভালবাসার গল্প
  5. রাজ রানী

মনের মধ্যে শান্তির ছোঁয়া

গল্পিবাজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ২০, ২০২১ ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

মনের মধ্যে শান্তির ছোঁয়া এটা খুবই কষ্টকর একটা কর্ম এটা চাইলে সবাই করতে পারে না এটা করার জন্য নিজেকে অনেক বেশি পরিশ্রমই হতে হবে অনেক বেশি কাজ করতে হবে। আমরা চাইলেই যে কেউ মনের মধ্যে শান্তির ছোঁয়া পেতে পারি না এটার জন্য আমাদের বহুৎ পরিশ্রম কষ্ট ক্লান্ত করতে হবে এরপর এই আমরা একটা শান্তির দিশারী অনুভব করব আমরা শান্তির নিকট পৌঁছতে পারব। মানুষ যদি খুব সহজেই শান্তির নিকট পৌঁছে যেতে পারতো তাহলে হয়তো দেশ কিংবা আমাদের সমগ্র পৃথিবীতে কোন মানুষ অসহায় কিংবা কোন মানুষ কষ্টে সময় কাটাতো না কষ্টের মধ্যে সময় না কাটিয়ে সবাই চেষ্টা করত ভাল সময় পার করার ভালো সময়ের মধ্যে নিজেকে অবগত রাখার।

বাস্তব জীবনে আমাদের করণীয় কি?

কিন্তু বিধাতার লিখন অন্যরকম। শান্তির ছোঁয়া পেতে হলে আপনাকে যুগ যুগ ধরে অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হতে পারে অক্লান্ত প্রশান্তি অনুভব করতে হতে পারে এর পরে হয়তোবা আপনি আল্লাহর ইচ্ছায় এবং আপনার প্রচেষ্টার জন্য একটা ভাল পজিশন এবং শান্তির ছোঁয়ায় আসতে পারেন। আমাদের পৃথিবীতে অনেক ধরনের লোক রয়েছে তাদের মধ্যে কিছু ধরনের লোক রয়েছে যারা অলস, যারা কাজে মনোযোগী না, কাজ দেখলে ভয় পায়, যারা মনে করে আমার জন্য কাজ ডিজার্ভ করে না মূলত তারাই একদিন অশান্তি সময় পার করবে।

আসলে অশান্তি সময় এটা এতটা কষ্ট কর সময় হয়ে থাকে যে মানুষ খুব ভালোভাবেই অনুভব করে। শান্তির ছোঁয়া শান্তির সময় এটি মানুষ খুব ভালোভাবে মনে রাখে অনুরূপভাবে দুঃখের সময় কিংবা কষ্টের সময় তাও মানুষ খুব ভালোভাবে মনে রাখবি দুটোর সময় মানুষ কখনো ভুলে না তবে এর মধ্যে স্বাভাবিক জীবন-যাপন এটা মানুষ মনে রাখে না। মানুষের জীবনে এমনটাই কখনো শান্তির ছোঁয়া আবার কখনো অশান্তির ছোঁয়া দুইটার মধ্য থেকে মানুষের জীবন পরিচালিত হয়। মানুষ চাইলেই তার নিজের ভাগ্যকে নিজের মতো করে চালাতে পারেনা ভাগ্য কেবলমাত্র মহান আল্লাহ তাআলার আদেশ থেকে হয়ে থাকে তাই এটি চাইলে কেউ নিজের মত পরিচালনা করার কোন শক্তি কাজ করাতে পারে না।

আরো পড়ুনঃ  নড়াইলে ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে

শান্তির ছোঁয়া পেতে হলে নিজেকে খুব কঠিন ভাবে তৈরি করতে হবে। নিজেকে এমন ভাবে তৈরি করতে হবে যাতে আমার কাজ দেখে মানুষ প্রাউড ফিল করে, যাতে করে আমার কাজ দেখে মানুষ আমাকে নিয়ে গর্ব করে আমাকে নিয়ে তারা ভাবতে শুরু করে এমনকি তারা আমাকে অনুসরণ করে আমার জায়গাটা তারা দখল করার চেষ্টা করে এভাবেই নিজেকে তৈরি করতে হবে। আপনি আপনাকে এমন ভাবে তৈরি করুন যাতে আপনাকে দেখে অন্য যারা আপনাকে অনুসরণ করে তারাও আপনার অবস্থানে পৌঁছাতে পারে। এতে করে আপনি নিজের মনের শান্তির ছোঁয়া অনুভব করবেন। নিজের মনকে বোঝাতে পারবেন যে আপনি নিজেও ভালো রয়েছেন এবং অন্যকে ভালো একটা অবস্থান এবং পজিশনে আসার এবং কাজ করার অবতরণ করেছেন।

মানুষ বিভিন্ন বিষয়ের উপরে চিন্তা ধারা করে থাকে! সব সময় মানুষ দেখবে টাকার পিছনে ছুটেই থাকে। টাকা এমন একটি বস্তু যা মানুষের হাতে গেলে আর বের হতে চায় না আপনার কারো হাতে টাকা যাওয়ার পরে সেটা কাউকে দিতে ইচ্ছে হয় না কিন্তু এটা দিতে বাধ্য অনেক সময় খেয়াল করে দেখবেন টাকার উপরে লেখা থাকে (দিতে বাধ্য থাকিবেন) এর মানে এটা কারো নিজস্ব হয়ে থাকে না আপনার হাতে যখন তখন আপনার নিজের আমার আপনার হাত থেকে যখন অন্যের হাতে যাবে তখন এটা সম্পূর্ণ তার ব্যক্তিগত এবং তার নিজের।

এই অপরূপ বস্তু এই অনিশ্চিত বস্তুর জন্য আমরা শান্তির ছোঁয়া কে দূরে রেখে মূলত অশান্তি নিয়ে শান্তির ছোঁয়া খুঁজে বেড়াচ্ছি। শক্তি আমাদের নিকট থাকলেও আমরা এটার কাছে পৌঁছতে পারি না আমরা মনে করি এটা আমাদের থেকে অনেক বেশি দূরে রয়েছে এটা আমরা শুতে পারব না এটা নিকট আমরা পৌঁছাতে পারবো না। কিন্তু বিষয়টি মোটেও এমন নয়, আমরা চাইলে আমাদের জীবনকে পরিবর্তন করতে পারি আমরা চাইলে আমাদের সমাজের থেকে আমাদের মত যারা বেকার কি মজার কাজ করতে চায় না যারা মনে করে কাজ আমার জন্য ডিজার্ভ করে না তাদেরকে পরিবর্তন করতে পারি।

আরো পড়ুনঃ  “বাঙালি জাতির জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জনের দিনটি আজ-মহান বিজয় দিবস

শান্তির ছোঁয়ার বিকল্প কি?

পৃথিবীতে যারা ধনী ব্যক্তি রয়েছেন তারা কখনোই খুব সহজে ধনী ব্যক্তি হতে পারেননি তাদের ধনী হওয়ার পেছনে রয়েছে অক্লান্ত পরিশ্রম আক্রান্ত ঘটনা যা আপনি হয়তো জানেন না। ধরুন পৃথিবীর ধনী ব্যক্তির অন্যতম একজন ব্যক্তি “বিলগেস্ট” Bill Guest যিনি পৃথিবীর অন্যতম একজন ধনী ব্যক্তির মধ্যে থেকেও শান্তির ছোঁয়া এখনো পেতে পারে নি। আপনারা হয়তো জানবেন কিছুদিন পূর্বে তার স্ত্রী এবং দুই ছেলেমেয়ে তাকে ছেড়ে চলে যায় অর্থাৎ তাদের মধ্যে ডিভোর্স ও হয়ে থাকে এর মানে বোঝা যাচ্ছে শুধু টাকা থাকলেই মানুষ শান্তির ছোঁয়া অনুভব করতে পারে না অর্থ দিয়ে শান্তির ছোঁয়া কেনা যায় না। অর্থ দিয়ে যদি মানুষ খুব সহজেই শান্তি ক্রয় করতে পারত তাহলে হয়ত পৃথিবীর সকল ধনী ব্যক্তি আজকে শান্তিতে থাকতো কিন্তু না খেয়াল করে দেখবেন পৃথিবীতে যারা এই ধনী ব্যক্তি রয়েছেন যাদের প্রচুর টাকা অট্টালিকা বাড়ি গাড়ি রয়েছেন তারাই মূলত অশান্তির ছোঁয়া নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

শান্তি মানুষকে ভাল একটা পজিশন এ পৌঁছে দিতে পারে কিন্তু সেটা নিজেকে ধরে রাখতে হবে। হয়তো আপনি এখন ভাল একটা পজিশনে রয়েছেন কিন্তু আপনি ভবিষ্যতের জন্য কিছুই তৈরি করেননি আপনি যখন ভালো পরিসরে থাকবেন না তখন চলার মতো কিছু একটা আপনাকে তৈরি করতে হবে অর্থাৎ কিছু সংগ্রহ করতে হবে। অধিকাংশ মানুষের মধ্যে সেটা অবগত যে আমরা এখন খেতে পারলেই হলো কালকে কি খাব সেটা কালকে দেখা যাবে কিন্তু বিষয়টি এমন নয়, আপনি আজকে খাবার পেয়েছেন সেটা থেকে কিছু সংগ্রহ করে রাখুন যাতে করে কালকে আপনি খাবার সংগ্রহ করতে না পারলেও এটা দিয়ে চালিয়ে নিতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ  মায়ের জন্য মেয়ের ভালোবাসা

মানুষের সংসার কিংবা নিজের ব্যক্তিগত জীবনে তখনই অশান্তি নেমে আসে যখন তার জীবনে কোন কিছু ঠিক থাকে না অর্থাৎ আমার রুটিং এর বাহিরে চলে, প্রতিদিনের মত আমি যে কাজ এখন করে থাকি সেখানে আমি এখন করতে না পারলেই আমার সময়টা আমার রুটিন এলোমেলো হয়ে যায় সব কিছু অন্যরকম ঘুরতে থাকে। আমাকে বুঝতে হবে কিভাবে নিজেকে সামনের দিকে এগিয়ে নেওয়া যায় এ বিষয়ে নিজেকে অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হবে। চাইলেই কেউ শান্তির ছোঁয়া অনুভব করতে পারে না এটার জন্য নিজেকে ভালো একটা প্রতিষ্ঠানে নিতে হবে এবং অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজেকে আরো স্ট্রং শক্তিশালী তৈরি করতে হবে যাতে করে আপনি সামনের দিকে খুব সহজেই আঘাতে পারেন।

আমরা অনেক সময় মোবাইল গেমস কিনে থাকি সেখানে দেখবেন আপনি যদি খুব দুর্বল হয়ে যান তখন আপনি সামনের দিকে আগাতে পারে না অনুরূপভাবে বাস্তব জীবনে আপনি যদি অক্লান্ত পরিশ্রম না করেন আপনি সামনের দিকে এগোতে পারবেন না আপনি যদি ক্লান্ত হয়ে পড়েন সেক্ষেত্রে আপনাকে কেউ পাত্তা দিবে না বাস্তব জীবনে আপনি যদি ক্লান্ত হয়ে পড়েন আপনার পাশে কাউকে পাবেন না কিন্তু আপনি যদি শক্তিশালী থাকেন সেক্ষেত্রে দেখবে সবাই আপনাকে শুতে চাই সবাই আপনাকে অনুসরণ করে। বাস্তব জীবনে হয়তো অনেক গল্প কিংবা অনেক বাস্তবতা দেখেছেন সেগুলো অনুসরণ করে আপনি সামনের দিকে আগানো হয়তোবা আপনার জীবনটা ভালোর দিকে চলতে পারে আপনিও পেতে পারেন শান্তির ছোঁয়া ‌‌।