ঢাকাশুক্রবার , ২৬ নভেম্বর ২০২১
  1. গল্প
  2. চারপাঁশে
  3. ভালবাসার খুনসুটি
  4. ভালবাসার গল্প
  5. রাজ রানী

ভালবাসার তাজমহল শেষ পর্ব

গল্পিবাজ ডেস্ক
নভেম্বর ২৬, ২০২১ ১০:০৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ভালবাসার তাজমহল গল্পের পূর্ববর্তী পর্ব গুলো পড়তে এখানে ক্লিক করুন!

আব্বু আমাকে বলল বাপের টাকায় খাস বাপের টাকা চলাফেরা করস তাই বুঝতে পারিস না টাকার গুরুত্ব কি টাকার মর্যাদা কি আমি বললাম আমি তো তোমাদের একমাত্র ছেলে তাহলে এগুলো কাদের জন্য করছো দিনরাত কাদের জন্য পরিশ্রম পৌঁছে কার জন্য করছ এগুলো। ভালবাসার তাজমহল

আব্বু আমার দিকে রাগিব নজরে তাকিয়ে বলল ইদানিং অনেক কথা শিখে ফেলেছ তুমি তুমি বেশি বাইরে চলাচল করো তুমি বেশি বাইরে আড্ডা দাও তাই তোমার আজকে এই পরিণতি তোমাকে আমরা বেশি আদর দিয়ে ফেলেছি তাই তোমার আজকের এই পরিণতি আমার দেখতে হচ্ছে আমি বললাম আপু এগুলো খারাপ করে পরিণতি না আমি তোমাদের কষ্ট দেয়ার জন্য এগুলো বলছিনা বাসায় আম্মু একা থাকে এটাও তো তোমার বুঝতে হবে।

আমি বললাম বাসায় আম্মু একা থাকে তখন যদি আমিন বাসায় থাকে আম্মুর সাথে গল্প করে আম্মুর সাথে সময় কাটায় তখন আম্মুর ভালো লাগবে সবার ভালো লাগবে বাসায় জমজমাট থাকবে একটু হলেও তোমরা আনন্দ উপভোগ করতে পারবে আমারও ভালো লাগবে। আব্বু বলল এগুলো নিয়ে তোমার চিন্তা করতে হবে না আমরা দেখছি কি করা যায়। তখন আমি মনের মধ্যে একটু আশ্বাস পেলাম কারণ আমি জানি আব্বু যেটা বলে সেটা করে ছাড়ে এবং সেটা করবেই। ভালবাসার তাজমহল

আরো পড়ুনঃ  ভালবাসার তাজমহল পর্ব-১

আব্বু অফিসে চলে গেলো আমি একটু শান্ত হলাম এবং ইয়ামিন ফোন দিলে সাথে সাথে ফোন রিসিভ করলাম আমি এমিগ্রেশন পুরো ঘটনা বললাম ইয়ামিন বলে ঠিক আছে দেখো কি করে তোমার আব্বু। আব্বু অফিস শেষে সন্ধ্যা বেলা তার নিজের গাড়ি নিয়েই ইয়ামিনের বাসায় চলে যায় এবং বাসায় গিয়ে আমিনদের আব্বুর সাথে বেশ খানিকটা সময় কথা বলে ইয়ামিন যদিও সে কথাগুলো আড়াল পেতে শুনতে পায় এবং সেগুলো আমাকে। ভালবাসার তাজমহল

ইয়ামিন দের বাসায় গিয়ে আব্বু বলেছে যে আমাদের আরিফ নাকি আপনার মেয়েকে ভালোবাসে আর আপনার মেয়েও আরিফকে ভালোবাসে বিষয়টা আপনি জানেন ইয়ামিনের আব্বু বলল হ্যা জানি কিন্তু ভাইজান আপনার ছেলে এখন বেকার আপনার ছেলের হাতে আমার মেয়ে খুলে দিব ঠিক আছে কিন্তু আপনার সাথে তো কোন চাকরি করে না আর এই বাজারে একটা বেকার ছেলের হাতে কোন বাবা তার মেয়েকে তুলে দিতে চায় না এটা আপনিও জানেন আপনার যদি কোন মেয়ে থাকতো তাহলে সেই মেয়েকে আপনি কোন বেকার ছেলের হাতে কখনো তুলে দিতেন না এটাই স্বাভাবিক তাহলে আমি কি করবো এখন বলেন? ভালবাসার তাজমহল

আরো পড়ুনঃ  ভালবাসার তাজমহল পর্ব-৬

ভালবাসার তাজমহল পর্ব-৯

এরপরে আপু বলল ঠিক আছে আমি চাচ্ছিলাম যে আরিফের লেখাপড়া শেষ হলে তারপরে আরিফকে আমার বিজনেস বুঝিয়ে দিতে কিন্তু যেহেতু ওর লেখাপড়া এখনো শেষ না তাই আমরা এখন কেবলমাত্র ওদের বিয়ে দিয়ে রাখবো আর এই আমিনকে এখনই আমরা তুলে নিব না ওদের লেখাপড়া শেষ হবে এরপরে যখন আরিফ একটা ভালো প্রফেশনের দাঁড়াবে অর্থাৎ আমার বিজনেস যখন ওকে দিব আর তিন বছর পরে তখন আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে ওদেরকে আমাদের বাসায় নিব এবং ওদের বিয়ে সম্পন্ন করব। ভালবাসার তাজমহল

ইয়ামিনের আব্বু বলল ঠিক আছে ভাইজান আপনি যেটা ভাল বুঝেন কারণ আপনি একজন গণ্যমান্য ব্যক্তি এই শহরের পাচন ব্যবসায়ীদের মধ্যে আপনি একজন আপনার কথায় না করার মত আমার নেই ঠিক আছে তাহলে এটাই ফাইনাল। এমিলের আব্বুকে বলল আরিফের পরীক্ষা আর কয়েকদিন পরে ওর পরীক্ষা শেষ হলে আমরা আপাতত বিয়ে দিয়ে রাখি তারপরও সেমিস্টার ফাইনাল হলে আমরা এই আমিনকে তুলে নিব।

ইয়ামিনের আব্বু বলল ঠিক আছে এটাই ফাইনাল আমার পরীক্ষা চলে পরীক্ষা খুব ভালোভাবে দিলাম আমার মন এখনো ফ্রেস দুজনে খোলা আকাশের পাখির মত উড়ে এখন আর আমাদের মধ্যে কোন কাটা নেই। এভাবে চলতে থাকে আমার পরীক্ষা শেষ ফাইনাল সেমিস্টার শেষ এখন আমাদের বিয়ের সময় বিয়ের পূর্বে আব্বু তার ব্যবসার সব কিছু আমাকে বুঝিয়ে দিলো এবং বলল তোমাকে এই ব্যবসাটা এই চালিয়ে যেতে হবে এবং এখানে তোমাকে ভালো কিছু করতে হবে। ভালবাসার তাজমহল

আরো পড়ুনঃ  ভালবাসার তাজমহল পর্ব-৭

আব্বুর ব্যবসা আমি সম্পুর্ন ভাবে বুঝে পেলাম এবং আমাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলো এখন আমরা অর্থাৎ আমি আব্বু ইয়ামিন আর কেউ না আমরা একই বাসায় থাকে এবং আমাদের বাসায় এখন জমজমাট আমাদের মধ্যে প্রচুর সুখ। অতঃপর বন্ধুগণ বোঝা গেল আমাদের ভালোবাসা সফল আমাদের বিয়ের আজকে চার বছর হয়ে গেছে আমাদের একটা কন্যা সন্তান হয়েছে খুব কিউট এবং আব্বু আম্মু খুব বেশি ভালোবাসে আমি তো কোলে নেয়ার সময় পাইনা ব্যবসার কাজে ব্যস্ত থাকি আর যখন ফ্রি থাকি তখন আমি ভাগে পাইনা আম্মুর সারাদিন ব্যস্ত থাকে। ভালবাসার তাজমহল

এভাবে আমাদের ভালবাসাটা সফল পর্যায়ে পৌঁছানো আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন ধন্যবাদ।